রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২

সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার মনসুরনগর ইউনিয়নের শালদহ-ছিন্নারচর কাঁচা সড়কের ঝুকিপূর্ণ মাজনাবাড়ি ব্রীজ শুক্রবার রাতে প্রবল বন্যার পানির চাপে ভেঙ্গে বিলিন হয়ে গেছে। অপরদিকে মাজনাবাড়ি-চরগিরিশ সড়কের রাজ্জাক মাস্টারের বাড়ির সামনের ব্রীজের এক পাশের সংযোগ সড়কের ২০ ফুট এলাকা ধসে গেছে। ফলে এ দু‘টি সড়ক দিয়ে ওই এলাকার অন্তত ১০ গ্রামের মানুষের যাতায়াত বন্ধ হয়ে গেছে। ধসে যাওয়া সড়কের ভাঙ্গণ ঠেকাতে ইতোমধ্যেই পানিউন্নয়ন বোর্ড বালু ভর্তি জিওটেক্স বস্তা ডাম্পিং কাজ শুরু করেছে।

এ বিষয়ে ওই গ্রামের আব্দুল আওয়াল, লেবু সরকার, বিটল সরকার, জহুরুল ইসলাম ও ফরিদুল ইসলাম বলেন,চোখের মামনে দেখতে দেখতে মাজনাবাড়ি ব্রীজটি বন্যার পানির চাপে ভেঙ্গে বিলিন হয়ে গেল। আমাদের দাড়ি দেখা আর আহাজারি ছাড়া আর কোন কিছু করার উপায় ছিল না। তারা আরো বলেন,রাজ্জাক মাস্টারের বাড়ির সামনের ব্রীজটির বাঁকি অংশও যে কোন মূহুর্তে ধসে যেতে পারে। এ সড়কটির সম্পূর্ণ অংশ ধসে গেলে মাজনাবাড়ি, চরছিন্না, চরগিরিশ, ভেটুয়া, ছালাল, শালদহ বাজার, পুরাতন বাজার পর্যন্ত সড়ক বন্যার পানির চাপে ধসে যাওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

অপরদিকে কাজিপুর উপজেলার নাটুয়াপাড়া রক্ষা বাঁধের হেড পয়েন্টের প্রায় ১৫০ ফুট এলাকা শুক্রবার ধসে গেছে। খবর পেয়ে সিরাজগঞ্জ পানি উন্নন বোর্ড ভাঙ্গণ এলাকায় বালুভর্তি জিওটেক্স বস্তা ফেলা শুরু করেছে। এ বাঁধে ধস দেখা দেওয়ায় এলাকাবাসি আতংকিত হয়ে পড়েছে। এ ছাড়া চরগিরিশ ইউনিয়নের চরডগলাস ও পীরেরচর সেতু যেকোন মূহুর্তে ধসে যাওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে।

এ বিষয়ে কাজিপুর উপজেলার এলজিইডি বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী শামছুল বারি জানান, ওই সড়কের একটি এলজিইডির একটি ব্রীজের আংশিক ধসে গেছে। এছাড়া ত্রাণ ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে নির্মিত একটি ব্রীজ বন্যার পানির চাপে সম্পূর্ণ বিলিন হয়ে গেছে বলে খবর পেয়েছি।

এ বিষয়ে সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী শফিকুল ইসলাম বলেন, কাজিপুর উপজেলার নাটুয়াপাড়া রক্ষা বাঁধের ধসে যাওয়া অংশে বালুভর্তি জিওটেক্স বস্তা ফেলে ওই এলাকা ঝুকিমুক্ত করা হয়েছে। অপরদিকে গত ২৪ ঘন্টায় যমুনা নদীর পানি সিরাজগঞ্জ শহর রক্ষা বাঁধ পয়েন্টে ২ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ৬৭ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

শনিবার সকালে সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের শহর রক্ষা বাঁধ পানি পরিমাপক আব্দুল লতিফ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় জেলার ৫ উপজেলার প্রায় ৪০টি ইউনিয়নের লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি জীবন যাপন করছে। তাদের মধ্যে চরম খাদ্য সংকট দেখা দিয়েছে।

সম্পর্কিত সংবাদ

বেলকুচিতে ফাঁকা বাড়িতে পড়ে ছিল মা ও দুই ছেলের লাশ

সিরাজগঞ্জ জেলার সংবাদ

বেলকুচিতে ফাঁকা বাড়িতে পড়ে ছিল মা ও দুই ছেলের লাশ

সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলায় একটি ফাঁকাবাড়ির টিনের ঘর থেকে মা ও দুই ছেলের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শাহজাদপুরে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও চাঁদাবাজি বন্ধের দাবীতে বিক্ষোভ

শাহজাদপুর

শাহজাদপুরে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও চাঁদাবাজি বন্ধের দাবীতে বিক্ষোভ

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার পোতাজিয়া ইউনিয়নের চড়াচিথুলিয়ার বহালবাড়ী গ্রামের ৪৭ জনের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও চাঁ...

পাগলা মসজিদের দানবাক্সে ১৫ বস্তা টাকা, চলছে গণনা

বাংলাদেশ

পাগলা মসজিদের দানবাক্সে ১৫ বস্তা টাকা, চলছে গণনা

কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদের দানবাক্সে এবার ১৫ বস্তা টাকা পাওয়া গেছে। বর্তমানে তা গণনা চলছে।

২১ থেকে ২৩ সেপ্টেম্বর ইন্টারনেট থাকতে পারে ধীর গতির

তথ্য-প্রযুক্তি

২১ থেকে ২৩ সেপ্টেম্বর ইন্টারনেট থাকতে পারে ধীর গতির

আইটি ডেস্কঃ চলতি মাসের ২১ থেকে ২৩ তারিখ পর্যন্ত ইন্টারনেট থাকতে পারে ধীর গতির। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এই তিনদিন প...

সিরাজগঞ্জে ৬শ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার, ২ জন আটক

অপরাধ

সিরাজগঞ্জে ৬শ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার, ২ জন আটক

চন্দন কুমার আচার্য, সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম সংযোগ সড়কে যানবহানে তল্লাশী করে ৬’শ বোতল ফেন্সিডিল ও ট্র...