বুধবার, ২৯ মে ২০২৪

ঝালকাঠিতে ১০ মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে বেত্রাঘাত করে গুরুতর আহত করার অভিযোগে অভিযুক্ত শিক্ষক হাফেজ মাওলানা মোহাম্মদ উল্লাহকে ধরে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসী।

শনিবার রাত ১১টার দিকে সদর উপজেলার পোনাবালিয়া ইউনিয়নের কে.এ খান হাফেজী মাদ্রাসা থেকে তাকে আটক করে সদর থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

এর আগে বেলা তিনটার দিকে কে.এ খান হাফেজী মাদ্রাসায় এ ঘটনা ঘটলেও সন্ধ্যার পরে বিষয়টি স্থানীয়রা জানতে পারে।

জানা গেছে, করোনাকালীন সময়ে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে কে.এ খান হাফেজী মাদ্রাসা চালু রেখে পড়াশোনা চালিয়ে আসছিলেন মাদ্রাসাটির একমাত্র শিক্ষক মোহাম্মদ উল্লাহ।

গতকাল শনিবার বেলা তিনটার দিকে মাদ্রাসার ভেতরে শিক্ষার্থীরা খেলা করছিল। একই সময় দুপুরের খাবার খেয়ে মাদ্রাসার ভেতরেই ঘুময়ে ছিলেন শিক্ষক মোহাম্মদ উল্লাহ।

এ সময় শিক্ষার্থীদের খেলার শব্দে মোহাম্মদ উল্লাহর ঘুম ভেঙে যায়। ঘুম ভেঙে গেলে শিক্ষক মোহাম্মদ উল্লাহ ক্ষেপে গিয়ে কক্ষের দরজা বন্ধ করে শিক্ষার্থীদের বেধম বেত্রাঘাত করেন।

এতে আমিনুল ইসলাম (১০), মোহাম্মদ সিয়াম (৯), মো. আমিনুল (৯) এবং মো. ইয়াছিনসহ (১৪) ১০ জন শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হন। এরপর শিক্ষার্থীরা ব্যথায় কান্নাকাটি করতে থাকলে শিক্ষার্থীকে কক্ষের মধ্যে আটকে রেখে বাইরে থেকে তালা ঝুলিয়ে দেন ঐ শিক্ষক এবং মারধরের বিষয়টি কাউকে না বলার জন্য সকল শিক্ষার্থীকে ভয়ভীতি দেখানো হয়।

পরে মাগরিবের নামাজের সময় পেছন থেকে সুকৌশলে নলছিটি উপজেলার বারইকরণ গ্রামের প্রবাসী আব্দুর রহিমের ছেলে মো. সিয়াম (৯) পালিয়ে কাঁদতে কাঁদতে পোনাবালিয়া বাজারে গিয়ে এলাকাবাসীকে বিষয়টি জানায়।

শিক্ষার্থী পালিয়ে যাওয়ার বিষয়টি টের পেয়ে শিক্ষক মোহাম্মদ উল্লাহ মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা মোরশেদ খানকে ঘটনাটি জানিয়ে দ্রুত মাদ্রাসা বন্ধ করে দিয়ে সকল শিক্ষার্থীকে বাড়ি চলে যাওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করেন।

এদিকে ঘটনা জানাজানি হলে পোনাবালিয়া বাজারের কয়েকশত স্থানীয় মাদ্রাসা ঘেরাও করে শিক্ষক মোহাম্মদ উল্লাহকে আটক করে পুলিশকে খবর দেয় ও গুরুতর আহত শিক্ষার্থীদের উদ্ধার করে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয় এবং এদের মধ্যে গুরুতর আহত শিশু সিয়ামকে ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে রাত এগারটার দিকে মোহাম্মদ উল্লাহকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

ঝালকাঠি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খলিলুর রহমান বলেন, শিক্ষার্থীদের নির্যাতনের অভিযোগে শিশু আইনে এক শিক্ষার্থীর বাবা বাদী হয়ে আজ রবিবার সকালে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। অভিযুক্ত শিক্ষককে আদালতে প্রেরণের কার্য়ক্রম চলছে।

সম্পর্কিত সংবাদ

মাদকের অন্ধকার থেকে ৫ যুবকের  আলোর জীবনে পদার্পণ

স্বাস্থ্য

মাদকের অন্ধকার থেকে ৫ যুবকের আলোর জীবনে পদার্পণ

নিজস্ব প্রতিবেদক, শাহজাদপুর : ‘মাদক যখন সেবন করেছি, তখন মানুষ খুন করা ছাড়া এমন কোন অপরাধ নাই যা করতো নূন্যতম দ্বিধাবোধ ক...

শাহজাদপুরে মানহীন ২০ বোতল পানি ধ্বংশ

অপরাধ

শাহজাদপুরে মানহীন ২০ বোতল পানি ধ্বংশ

শাহজাদপুর প্রতিনিধি : গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকালমঙ্গলবার দুপুরে শাহজাদপুর পৌর এলাকার দ্বারিয়াপুর বাজার এলাকা থেকে ২০ বো...

শাহজাদপুরের কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী মানিক গ্রেফতার

অপরাধ

শাহজাদপুরের কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী মানিক গ্রেফতার

শামছুর রহমান শিশির : শাহজাদপুরের কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী, ৪ বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী ও প্রায় এক ডজন মাদক মামলার প্র...

সিরাজগঞ্জে পৃথক বজ্রপাতে কলেজ ছাত্র ও পিতা-পুত্র সহ ৫ জন নিহত ও ২ জন আহত

সিরাজগঞ্জ জেলার সংবাদ

সিরাজগঞ্জে পৃথক বজ্রপাতে কলেজ ছাত্র ও পিতা-পুত্র সহ ৫ জন নিহত ও ২ জন আহত

মোঃ মুমীদুজ্জামান জাহান,সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর, কাজিপুর ও কামারখন্দ উপজেলায় বজ্রপাতে দুই কলেজ ছাত্র,...

বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে ধস- সিরাজগঞ্জে ৩৫ গ্রাম প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কা

সিরাজগঞ্জ জেলার সংবাদ

বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে ধস- সিরাজগঞ্জে ৩৫ গ্রাম প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কা

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার রতনকান্দি ইউনিয়নের বাহুকা এলাকায় বাঁধ ধসে লোকালয়ে প্রবেশ করতে শু...

হাইকোর্টে নির্দেশনা : শাহজাদপুরে স্বাধীনতা বিরোধী মাওলানা ছাইফুদ্দিনের নাম মুছে ফেললো কলেজ শিক্ষার্থীরা

জাতীয়

হাইকোর্টে নির্দেশনা : শাহজাদপুরে স্বাধীনতা বিরোধী মাওলানা ছাইফুদ্দিনের নাম মুছে ফেললো কলেজ শিক্ষার্থীরা

ডেস্ক রিপোর্ট : বৃহত্তর পাবনা জেলা পিস কমিটির চেয়ারম্যান সাইফুদ্দিন এহিয়ার নামে থাকা শাহজাদপুরে স্থাপিত বিভিন্ন শিক্ষা...